টাংগুয়ার হাওরে ফসল রক্ষা বাঁধ কাটায় হুমকির মুখে ১০০০ হেক্টর জমি

Home Page » সর্বশেষ সংবাদ » টাংগুয়ার হাওরে ফসল রক্ষা বাঁধ কাটায় হুমকির মুখে ১০০০ হেক্টর জমি
শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮



সুনামগঞ্জনাউটানা জাঙ্গাল প্রধিনধি:-সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরের নাউটানা ফসল রক্ষাবাঁধ কেটে দেওয়ায় হাওরের এ জমির বোরো ধান হুমকির মুখে পড়েছে। পানিতে এসব জমির ৫০ শতাংশ ধান তলিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।

বৃহস্পতিবার ভোরে সবার অগোচরে একদল জেলে তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি গ্রামসংলগ্ন নাউটানা বাঁধটি কেটে দেয়। পানিতে জাল ফেলে মাছ ধরার জন্য তারা এই কাজ করেন বলে দাবি করা হচ্ছে। এই ঘটনার পর টাঙ্গুয়ার হাওরের এরালিয়াকোনা, গনিয়াকুরি, লামারগুল, টানেরগুল, নান্দিয়া, মাজেরগুল, টুঙ্গামারা, সুনাডুবি, গলগলিয়া, শামসাগর হাওরের ধান হুমকির মুখে পড়েছে।

ফসল রক্ষাবাঁধ কাটার ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকালে টাংগুয়ার হাওরের কমিউনিটি গার্ডের সদস্য খসরুল আলম বাদী হয়ে তাহিরপুর থানায় আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৯০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রামসিংহপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেনকে (২৮) গ্রেফতারও করেছে।

টাঙ্গুয়ার হাওরের সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি এ বাঁধটি নির্মাণ করে। এই সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটির কোষাধ্যক্ষ খসরুল আলম বলেন, ‘টাঙ্গুয়ার হাওরের নাউটানা বাঁধের পুরনো বাঁধটিতে এবারও মাটি ফেলা হয়েছে। একশ্রেণির অসৎ জেলে হয়তো মাছ ধরার জন্য বাঁধটি কেটে দিয়েছে।’
শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাজিনুর মিয়া জানান, ‘নাওটানা খালটি বৃহস্পতিবার ভোররাতে কে বা কারা কেটে দিয়েছে। বাঁধটি কেটে দেওয়ায় টাঙ্গুয়ার হাওরের ৫০ ভাগ ফসল পানির নিচে তলিয়ে যাবে।’

তাহিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুস সালাম বলেন, ‘হাওরের বাঁধটি কেটে দেওয়ায় ফসলের তেমন কোনও ক্ষতি হবে না। কারণ, মানুষ ধান কেটে ফেলছে। এছাড়া পুরো হাওরে পানি ঢুকতে আরও কয়েকদিন সময় লাগবে। তবে ১৫০০ কৃষকের ১০০০ হেক্টর জমির বোরো ফসল ঝুঁকিতে আছে।’

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবু বকর সিদ্দিক ভুঁইয়া বলেন, ‘বাঁধটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোনও বাঁধ নয়। এটি টাঙ্গুয়ার হাওরের কমিউনিটি সদস্যদের তৈরি করা বাঁধ। পানি উন্নয়ন বোর্ডের সব বাঁধ এখনও নিরাপদ রয়েছে।’

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নন্দন কান্তি ধর বলেন, ‘বাঁধ কাটাহর ঘটনায় খসরুল আলম বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন এবং একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

উল্লেখ্য, টাঙ্গুয়ার হাওরের অন্তর্গত ছোট-বড় ১০টি হাওরে উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের কৃষকদের জমি রয়েছে। সূত্র: হিমাদ্রী শেখর ভদ্র, সময় টেলিভিশন

বাংলাদেশ সময়: ১১:২৪:৩৩   ১৪৪ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

সর্বশেষ সংবাদ’র আরও খবর


সিইসির বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ৪ ইসির দ্বিমত, সংযত হয়ে কথা বলার পরামর্শ কাদেরের
সরকারের গৃহীত পদক্ষেপে সন্তোষ প্রকাশ, ক্লাসে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা
ভাঙ্গায় পানিতে ডুবে যুবকের মৃত্যু
ভাঙ্গায় ৩০ মিনিটের মধ্যে আওয়ামীলীগের বিরুদ্ধে স্বড়যন্ত্র করার অপচেষ্টা কারীদের কঠিন হুশিয়ারী
ভাঙ্গায় কাজী জাফরউল্লাহ ও এমপি নিক্সন চৌধুরীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ-অফিস ভাংচুর ॥ আহত ৫
ভাঙ্গা পৌর বাসির পক্ষ থেকে কাজী জাফরউল্লাহ’কে সংবর্ধনা
ভাঙ্গায় স্বেচ্ছা সেবকলীগের ২৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত
কুমিল্লার মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর
ভাঙ্গায় দৈনিক বাঙ্গালী খবর পত্রিকার ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত
ভাঙ্গার সেই কথিত ধর্ষিতার সেফ হোমের চালা ভেঙ্গে পলায়ন

আর্কাইভ