ভারতে ধূলিঝড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫

Home Page » অর্থ ও বানিজ্য » ভারতে ধূলিঝড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫
শুক্রবার, ৪ মে ২০১৮



ফাইলে ছবিবঙ্গ-নিউজঃ ভারতের রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে প্রবল ধূলিঝড় এবং বজ্রসহ টানা বৃষ্টিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন আরও প্রায় আড়াইশ’ মানুষ। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। খবর এনডিটিভির।

দুর্যোগে নিহতদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সংকট মোকাবেলায় রাজ্য সরকারগুলোকে সহায়তার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন।

রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে কয়েকদিন ধরেই আবহাওয়া ছিল গুমোট। প্রচণ্ড গরমে অস্বস্তি ছিল জনজীবনে। কোথাও কোথাও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত ওঠে। বুধবার রাতে হ়ঠাৎ শুরু হয় প্রচণ্ড বাতাস। কিন্তু স্বস্তির বদলে মুহূর্তে তা আতঙ্কে রূপ নেয়। বাতাসের সঙ্গে শুরু হয় প্রচণ্ড ধূলিঝড়। মুহূর্তের মধ্যে উপড়ে পড়ে বড় বড় গাছ, উড়িয়ে নিয়ে যায় দোকানঘর, অস্থায়ী ছাউনি ও ঘরবাড়ির ছাদ।

এক পর্যায়ে এই ধূলিঝড় রাজধানী দিল্লির দিকে অগ্রসর হলেও সেখানে কোনো প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেদ্র মোদি এক টুইটে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি এই সংকট মোকাবেলায় সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

উত্তর প্রদেশ ও রাজস্থানের দুই মুখ্যমন্ত্রী নিহতদের প্রতি পরিবারকে চার লাখ ও আহতদের প্রতি পরিবারকে ৫০ হাজার রুপি করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০:০৫:০১   ২১৪ বার পঠিত  




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

অর্থ ও বানিজ্য’র আরও খবর


পোশাক শ্রমিকদের নতুন মজুরি কাঠামো: ঐক্যমতের ভিত্তিতে সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত
আজ আবার রাস্তায় নামে অন্তত ৭০ পোশাক কারখানার শ্রমিক, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি মোতায়েন
এবারও বিপিএল মাতাবেন জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া
“রঙ্গে ভরা আমার ব্যাংকিং জীবন “-জালাল উদদীন মাহমুদ
“রঙ্গে ভরা আমার ব্যাংকিং জীবন “-জালাল উদদীন মাহমুদ
নির্বাচনে জামায়াতের কেন্দ্রীয় ১০ নেতা
চাঁদপুরে প্রায় ৭৫০ মণ ইলিশ জব্দ করেছে টাস্কফোর্স!!
আর্থ-সামাজিকসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেশের মানুষের জীবনে সত্যিই একটা পরিবর্তন এসেছে: প্রধানমন্ত্রী
মুদ্রা পাচার আইন থাকার পরও কেন এ–সংক্রান্ত মামলা হচ্ছে না জানতে চাইলে কাস্টমস কমিশনার এ কে এম নুরুজ্জামান বলেন
দীর্ঘ ১৯ মাস পর ঘোড়াশাল ইউরিয়া সার কারখানায় উৎপাদন শুরু হয়েছে।

আর্কাইভ