চাঁদপুরে প্রায় ৭৫০ মণ ইলিশ জব্দ করেছে টাস্কফোর্স!!

Home Page » অর্থ ও বানিজ্য » চাঁদপুরে প্রায় ৭৫০ মণ ইলিশ জব্দ করেছে টাস্কফোর্স!!
শনিবার, ২৭ অক্টোবর ২০১৮



ছবি সংগৃহীত

বঙ্গ-নিউজ:  সরকার ৭ থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত উপকূলীয় এলাকার সব নদ-নদী থেকে মা ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরা, বহন, মজুত ও বিক্রি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিভিন্ন স্থানে জেলেদের মাছ ধরার খবর পাওয়া যাচ্ছে। প্রশ্ন হলো নিষেধাজ্ঞা যদি বাস্তবায়নই না হয়, তাহলে তা জারি করার অর্থ কী? অবশ্য আমাদের দেশে কোনো ক্ষেত্রেই সরকারি নিষেধাজ্ঞা যথাযথভাবে প্রতিপালিত হওয়ার সংস্কৃতি গড়ে ওঠেনি। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মাছ ধরার অপরাধে ইতিমধ্যে উপকূলীয় বিভিন্ন জেলায় ২৫ জন জেলের জেল-জরিমানা হয়েছে।

‘মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আর মাত্র দু’দিন আছে। মা ইলিশ রক্ষায় মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই চাঁদপুরে প্রায় ৭৫০ মণ ইলিশ জব্দ করেছে টাস্কফোর্স

শুক্রবার সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের জাহাঙ্গীর মেম্বারের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে মাছগুলো জব্দ করা হয়। অভিযান চালানোর সময় তারা পুলিশের ওপর হামলা করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৪০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি নিক্ষেপ করে।

রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বন্দুকশীকান্দি গ্রামের জাহাঙ্গীর মেম্বারের বাড়িতে বিপুল পরিমাণ ইলিশ সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে— এমন তথ্যের ভিত্তিতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশ, কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ, মৎস্য বিভাগের সমন্বয়ে গঠিত টাস্কফোর্স সদস্যরা শুক্রবার দুপুরে সেখানে অভিযান চালান। পরে জাহাঙ্গীর মেম্বারের বাড়ির দুটি গোয়াল ঘরে রক্ষিত প্রায় ৭৫০ মণ ইলিশ জব্দ করা হয়।

চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী বলেন, অভিযান চালিয়ে সেখানে রক্ষিত গোয়াল ঘর থেকে মাছগুলো জব্দ করেছি। জব্দকৃত মাছের মধ্য থেকে প্রায় ২৫০ মণ ইলিশ চাঁদপুরে নিয়ে আসা হয়েছে। সেখানে আরও ৫০০ মণেরও বেশি মাছ রয়েছে। ওই মাছগুলো রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হযরত আলীসহ স্থানীয় ৫ জনের জিম্মায় রাখা হয়েছে।’

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবদুলল্গাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, ‘অভিযান চালাতে গেলে সেখানকার অসাধু লোকজন আমাদের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রায় ৪০ রাউন্ড শর্টগানের গুলি নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।’

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান জানান, ‘মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আর মাত্র দু’দিন আছে। এ অবস্থায় জেলেরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। কিন্তু আমাদের প্রশাসনের সব সদস্য মা ইলিশ রক্ষায় সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মা ইলিশ রক্ষায় আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুন নাহার শম্পা ও কোস্টগার্ড কমান্ডার এনায়েতুল্লাহ জানান, মা ইলিশ রক্ষায় সরকার ঘোষিত নদীতে মাছ ধরার ওপর ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা চলছে; কিন্তু কিছু অসাধু জেলে ও স্থানীয় প্রভাবশালী নদীতে মা ইলিশ শিকার করে সংরক্ষণ করছে।

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫৯:৪৪   ১১০ বার পঠিত   #  #  #  #  #  #




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

অর্থ ও বানিজ্য’র আরও খবর


মাদক ও অস্ত্র মামলার তদন্ত ৩০ দিনের মধ্যে শেষ করার নির্দেশ- হাইকোর্ট
বিশ্বের প্রায় ৩৬% স্মার্টফোন ম্যালওয়ারে আক্রান্ত
বাসের জন্য আলাদা উড়াল সড়ক তৈরি হচ্ছে
লাল-সবুজের ছোঁয়ায় ভ্রমণ করার প্রকল্প
ঠিকাদারের লাভ, সরকারের হাজার কোটি টাকার ক্ষতি
অর্ধডজন ইউপি সদস্যসহ ২৫ গডফাদার ও ৩৮ শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী পুলিশ হেফাজতে
মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হবে ৩০ জানুয়ারি
আজ সকালে শুরু হলো পদ্মা সেতুর ষষ্ঠ স্প্যান বসানোর কাজ
আরও ৪ হাজার ৪১০ কোটি টাকা বরাদ্দ চায় সড়ক পরিবহন বিভাগ
পোশাক শ্রমিকদের নতুন মজুরি কাঠামো: ঐক্যমতের ভিত্তিতে সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত

আর্কাইভ