তালেবানের শহর দখল, সেনা প্রত্যাহারে অনড় বাইডেন

Home Page » জাতীয় » তালেবানের শহর দখল, সেনা প্রত্যাহারে অনড় বাইডেন
মঙ্গলবার, ১০ আগস্ট ২০২১



ফাইল ছবি -জো বাইডেন

বঙ্গ-নিউজ: আফগানিস্তানিদের  সুরক্ষা দিতে আসা আমেরিকা ঠিক বিপদের মুহূর্তে সৈন্য প্রত্যাহার করতে চলেছ। তালেবান একের পর এক আফগানিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানী দখল করে চললেও ভাবান্তর নেই মার্কিন প্রশাসনে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার নেওয়া সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে এখনও অনড় রয়েছেন।

বলা হচ্ছে, তালেবানদের সঙ্গে করা চুক্তি অনুযায়ী তিনি যথাসময়েই সেনা প্রত্যাহার করবেন। চুক্তি অনুযায়ী আগামী ৩১ আগস্টের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের কথা দিয়েছেন বাইডেন। জিও টিভি।

তালেবান গত কয়েকদিনের মধ্যে ছয়টি প্রাদেশিক রাজধানী দখল করে নিয়েছে। তাদের এই অগ্রগতির মধ্যে ওয়াশিংটন আফগান থেকে সেনাপ্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করছে না।

২০১৭ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তান-পাকিস্তানের দয়িত্বে থাকা মার্কিন কর্মকর্তা লরেল মিলার বলছেন, সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত সবকিছু জানাশোনার পরই করা হয়েছে। আফগানে এখন যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে তা অনুমান করেই সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

খবরে বলা হচ্ছে, বাইডেন বেশ ঠাণ্ডা মাথায় সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা তিনি আমেরিকার সবচেয়ে বড় যুদ্ধের অবসান চেয়েছেন। ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আমেরিকার ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলার পর আল কায়েদার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিল যুক্তরাষ্ট্র।

আল কায়েদা আফগানে পরাজিত হয়েছে, সংগঠনটির প্রধান ওসামা বিন লাদেন নিহত হয়েছেন। বাইডেন মনে করেন এখন আর আফগানিস্তান থেকে আমেরিকান সেনা থাকার কোনো দরকার নেই।

গত মাসে বাইডেন বলেন, বিশ বছরের অভিজ্ঞতা আমাদের জানান দিয়েছে, আফগানে আর মার্কিন সেনা থাকার প্রয়োজন নেই। যুদ্ধ আফগানে শান্তি বয়ে আনবে না।

তবে ৩১ আগস্ট মার্কিন সেনা আফগান ত্যাগের পর যুক্তরাষ্ট্র তালেবানের বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখবে বলে একটা ঘোষণা গণমাধ্যমে আসে। কিন্তু পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি সোমবার বলেন, গত সপ্তাহে মার্কিন বোমা হামলা করা হয়েছিল আফগান সরকারি বাহিনীকে সহযোগিতার জন্য। কিন্তু এ মাসে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর আর বোমা হামলার কোনো সিদ্ধান্ত নেই।

ফাইল ছবি -তালিবান যোদ্ধা

তিনি বলেন, দেশকে রক্ষা করার দায়িত্ব দেশের সরকারের। এটা তাদের সংগ্রাম। কিরবি যদিও স্বীকার করেন আফগানিস্তানের পরিস্থিতি দিন দিন আরও খারাপ হচ্ছে।

এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেন, তালেবান যদি জোর করে আফগােনের ক্ষমতা দখল করে তাহলে তাদের একঘরে করে দেওয়া হবে।

পাকিস্তান-আফগানিস্তানের দায়িত্বে থাকা আরেক সাবেক মার্কিন কর্মকর্তা মাইকেল কুগেলমান বলছেন, যদি দেখেন যে, তালেবানরা আফগানিস্তানকে পুরোপুরি দখল করার হুমকি দিচ্ছে, কিংবা এমন পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে, তাহলে আমি মনে করি না এটি আফগান সরকারকে নড়চড় করে ফেলবে।

আফগান থেকে মার্কিন সেনা সরে আসলে তালেবান ঠেকাতে সরকারের খরচ বেড়ে যাবে, এই একটি সমস্যা। এ ছাড়া অন্য কিছু দেখি না।

বাংলাদেশ সময়: ২১:০৪:২৩   ১৮৯ বার পঠিত   #  #  #  #




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

জাতীয়’র আরও খবর


বিএনপি সবসময় ধ্বংসাত্মক কাজ করে: প্রধানমন্ত্রী
ইসি গঠনের আইনে যা যা থাকছে
নির্বাচন কমিশন আইন সংসদে উঠছে কাল
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি
আরেক শিক্ষার্থী হাসপাতালে, শিক্ষকদের প্রতিনিধিদল ঢাকায়
মাস্ক আমার, সুরক্ষা সবার’ ক্যাম্পেইন শুরু আজ থেকে
সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের প্রতি একাত্মতা জ্ঞাপন করেছে সিলেটের সংস্কৃতিকর্মীরা
কেমন হবে ৫০ বছর পরের বাংলাদেশ?
দুই সপ্তাহের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে

আর্কাইভ

16. HOMEPAGE - Archive Bottom Advertisement