মালয়েশিয়া প্রবাসীদের রেমিট্যান্স কমলো মহামারিতে ৪২ শতাংশ

Home Page » অর্থ ও বানিজ্য » মালয়েশিয়া প্রবাসীদের রেমিট্যান্স কমলো মহামারিতে ৪২ শতাংশ
সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১



প্রবাসীদের রেমিট্যান্স কমলো মহামারিতে ৪২ শতাংশ

বঙ্গনিউজঃ মহামারির কারণে মালয়েশিয়ার অর্থনীতি এখন সর্বনিম্নে অবস্থান করছে। দেশটির পরিসংখ্যান বিভাগের তথ্য মতে, এর আগে ৮০ দশকের পর অর্থাৎ ২২ বছর পর এই প্রথম জিডিপি বড়সড় ধাক্কা খেয়েছে। আর এর নেতিবাচক প্রভাব দেশটিতে প্রবাসী রেমিট্যান্স যোদ্ধাসীদের ওপরও পড়েছে। সমপ্রতি এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত অর্থবছরের তুলনায় এবার ৪২ শতাংশ কমেছে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স প্রেরণ।

শুক্রবার (৮ই সেপ্টেম্বর) মালয়েশিয়াস্থ অগ্রণী রেমিট্যান্স হাউসের চিফ এক্সিকিউটিভ কর্মকর্তা ও ডিরেক্টর খালেদ মোর্শেদ রিজভী বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে গত অর্থবছরের তুলনায় বর্তমান অর্থ বছরে রেমিট্যান্স প্রবাহ ৪২ শতাংশ নেমে এসেছে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অগ্রণী রেমিট্যান্স হাউসের মাধ্যমে প্রবাসীরা দেশে অর্থ পাঠিয়েছেন, ২৬০.১১ কোটি টাকা। চলতি মাসের ৭ই অক্টোবর পর্যন্ত দেশে রেমিট্যান্স গেছে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি টাকা। মালয়েশিয়া থেকে বৈধপথে ২০২০-২১ অর্থবছরে দেশে এসেছে ২ হাজার ২ দশমিক ৩৬ মিলিয়ন ডলার,বিদেশ থেকে রেমিট্যান্স প্রেরণে মালয়েশিয়া ছিল ৫ম স্থানে। বর্তমানে তা ৭ম এ নেমে এসেছে। চলতি বছরের জুলাই মাসে ১১০.৭০ মিলিয়ন, আগস্টে ৯৬.২৪ মিলিয়ন, সেপ্টেম্বরে ৮৩.৮৪ মিলিয়ন ডলার, যা গত অর্থবছরে গড়ে পাঠানো রেমিট্যান্সের তুলনায় ৪২ শতাংশ কমেছে।

বিগত প্রায় ২ বছর ধরে করোনা মোকাবিলায় জারি করা সরকারি বিধিনিষেধ ও লকডাউনে স্থবির হয়ে যায় রেমিট্যান্স প্রবাহ। গণহারে প্রবাসীরা তাদের কর্ম হারিয়েছেন। ব্যবসায়ীরা হারিয়েছেন তাদের সবকিছু। দেশটিতে থাকা লাখ লাখ বাংলাদেশি কর্মী পড়েছেন উভয় সংকটে। কারণ তারা না পারছিলেন মালয়েশিয়ায় কামাই রোজগার করতে কিংবা না পারছিলেন নিজ দেশে খালি হাতে ফিরে যেতে। বছরের পর বছর কর্মহীন থাকার ফলে তারা হয়ে পড়েছেন ঋণগ্রস্ত। তবে আশার কথা হলো বিশ্লেষকরা বলছেন, দেশটির সরকার অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে নানা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন এবং সব ধরনের কর্মক্ষেত্র পর্যায়ক্রমে খুলে দেয়ায় প্রবাসীদের মাঝে কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসছে। সরকারের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে ঘোষণা দেয়া হয়েছে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সব কিছু খুলে দেয়া হবে। আর এর মধ্যে দেশটির বাসিন্দাদের ১০০ ভাগ টিকা প্রদান সম্পন্ন করা হবে।
গত ২ মাসে সরকারের কিছু বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নেওয়ায় আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হতে শুরু করছে মালয়েশিয়া প্রবাসীদের কর্মজীবন। আশা করা যাচ্ছে করোনার কারণে রেমিট্যান্স পাঠানোতে যে ক্ষতিসাধন হয়েছে সেটি পুষিয়ে উঠতে কমপক্ষে ৬ মাস সময় লাগবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭:২৪:৪৪   ৪৩১ বার পঠিত   #  #  #  #  #  #  #  #




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

অর্থ ও বানিজ্য’র আরও খবর


পদ্মা সেতুর টোল আদায়,রেকর্ড ৩ কোটি টাকা !
সাপ্তাহিক ছুটির দিন শনিবারেও ব্যাংক খোলা
রপ্তানিতে ক্রমাগত ভাবে সাফল্য এসেছে বাংলাদেশে
একদিনে টোল আদায় হয়েছে ২ কোটি ৯ লাখ ৪০ হাজার টাকা
মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার দরপতন অব্যাহত আছে
পদ্মা সেতু থেকে টোল আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা
দেশে সবার জন্য পেনশন ব্যবস্থা চালু হবে-অর্থমন্ত্রী
২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেটে দাম বাড়বে যেসব পণ্যের
বাজেটে সিগারেট ও বিড়ির ওপর শুল্ক বাড়ানো হবে
পাচার হওয়া অর্থ বৈধ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী

আর্কাইভ

16. HOMEPAGE - Archive Bottom Advertisement