তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের মন্তব্য: বিএনপির গণ–অভ্যুত্থানের আহ্বান দিবাস্বপ্ন

Home Page » জাতীয় » তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের মন্তব্য: বিএনপির গণ–অভ্যুত্থানের আহ্বান দিবাস্বপ্ন
বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১



তথ্যমন্ত্রীর মন্তব্য - বিএনপির গণ–অভ্যুত্থানের আহ্বান দিবাস্বপ্ন

বঙ্গনিউজঃ  তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদছবি:  নব্বইয়ের গণ–অভ্যুত্থানের মতো সরকারের পতন ঘটানোর জন্য বিএনপির আহ্বানকে দিবাস্বপ্ন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বরং দলটিকে নিজেদের ঘর সামলানোর দিকে মনোযোগ দিয়ে আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বলেন। সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ একথা বলেন।তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২০০৯ সালে সরকার গঠনের তিন মাস পর থেকে সাড়ে ১২ বছর ধরে আমরা গণ–অভ্যুত্থানের কথা শুনে আসছি। গত সাড়ে ১২ বছরের উন্নয়নের কারণে প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় বসে আবার পেট্রলবোমার রাজনীতি করবে, ৫০০ জায়গায় বোমা ফোটাবে, দেশকে আবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানাবে এবং শায়খ আবদুর রহমান, বাংলা ভাই—এগুলো সৃষ্টি করবে। এ জন্য বিএনপির পক্ষে মানুষ কখনো নামবে না। বিএনপি দিবাস্বপ্ন দেখছে।’বিএনপির ঐক্যটা বাতাস চলে যাওয়া বেলুনের মতো চুপসে গেছে উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০–দলীয় জোট যেটি বহু আগে তাঁরা করেছিলেন, সেই দলে এখন আট-দশটি দলের বেশি নেই। বাকি সব দল পালিয়ে গেছে। মির্জা ফখরুল সাহেবকে বলব, তাঁদের বরং নিজেদের ঘর সামলানোর দিকে মনোযোগ দিয়ে আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা প্রয়োজন।’এদিকে জাতীয় প্রেসক্লাবে মির্জা ফখরুল সাহেবদের রাজনৈতিক দলের কার্যালয়ের মতো সমাবেশ করে প্রেসক্লাবের পবিত্রতা ও মানমর্যাদা নষ্ট করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ।হাছান মাহমুদ বলেন, ‘প্রেসক্লাবে অবশ্যই সরকারের পক্ষে-বিপক্ষে বা সিভিল সোসাইটির আলোচনা সভা হতে পারে। কিন্তু নয়াপল্টনে কার্যালয়ের সামনে যেভাবে সমাবেশ হয়, প্রেসক্লাবকে সেভাবে সমাবেশস্থল বানানো সমীচীন নয়, যেটি রোববার বিএনপি করেছে বলে জেনেছি।’কেব্‌ল অপারেটিং সিস্টেম ডিজিটাল হওয়া প্রসঙ্গে প্রশ্নের জবাবে সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে গত বৈঠকে সিদ্ধান্ত ছিল যে পয়লা অক্টোবর থেকে ক্লিন ফিড বাস্তবায়ন করা হবে, সেই একই বৈঠকে তাঁরাই বলেছিলেন যে ঢাকা ও চট্টগ্রামে কেব্‌ল অপারেটিং সিস্টেম অনেকটাই ডিজিটাল হয়ে গেছে, নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে পুরোটাই তাঁরা ডিজিটাল করতে পারবেন। এই ডিজিটালাইজেশনের জন্য আমরা বদ্ধপরিকর। এটি হলে সম্পূর্ণ সম্প্রচারমাধ্যমই লাভবান হবে।’দক্ষিণ এশিয়ার নিক্কি প্রতিবেদনে করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রথম স্থান অধিকার প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, এই দেশে প্রধানমন্ত্রী যেভাবে করোনা নিয়ন্ত্রণ করেছেন, সেটি আসলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও প্রশংসা করেছে। এর আগে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা, আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর এই করোনা মোকাবিলার প্রশংসা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬:২১:৫২   ২১৯ বার পঠিত   #  #  #  #  #  #  #  #  #  #




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

জাতীয়’র আরও খবর


আজ মেসির জন্য মেক্সিকোর বিরুদ্ধে খেলাটি ‘বাঁচা-মরার লড়াই’
উন্নয়নের গতি কেউ থামাতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী
বিশ্ব কাপ ফুটবলে ইরানের কাছে হেরে গেল ওয়েলস
কিছু লোক দেশের চিকিৎসায় আস্থা রাখতে পারে না-শেখ হাসিনা
কাল কর্ণফুলী বঙ্গবন্ধু টানেলের প্রথম টিউব উদ্বোধন
সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেয়া ফুটবল দলের ১০ কোচ
জাপান সফর স্থগিত প্রধানমন্ত্রীর
আগামী নির্বাচনেও নৌকা মার্কায় ভোট দিন-শেখ হাসিনা
৩০ নভেম্বর থেকে চলবে যশোর-কক্সবাজার রুটে নভোএয়ার
বিমানবন্দর সড়ক ৬০ ঘণ্টা এড়িয়ে চলার নির্দেশনা

আর্কাইভ

16. HOMEPAGE - Archive Bottom Advertisement