প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন

Home Page » জাতীয় » প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২



 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার দুই সন্তান

বঙ্গনিউজঃ    জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিহত হওয়ার সময় ঘটনাক্রমে ছিলেন বিদেশে; ছয় বছরের নির্বাসন জীবন শেষে ১৯৮১ সালের ১৭ মে দেশে ফিরেছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। এরপর থেকে গত ৪১ বছর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও আপসহীন নেতৃত্বের মাধ্যমে দেশের অসাম্প্রদায়িক-গণতান্ত্রিক রাজনীতির মূল স্রোতধারার প্রধান নেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তিনি। কেবল তাই নয়, বিশ্বের সমস্যা-সংকট নিরসনের পাশাপাশি শোষিত-নিপীড়িত মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে অসামান্য অবদান রাখায় তাঁকে এখন বিশ্বনেতাদের সারিতে মর্যাদা দেওয়া হয়ে থাকে।

সর্বশেষ জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে একজন সফল রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে শেখ হাসিনা বিশ্বনেতাদের সামনে দুর্যোগের সংকটপূর্ণ সময়ে সমাধানের সূত্র তুলে ধরেছেন। এর আগে থেকেই বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায়ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছেন তিনি।

আজ ২৮ সেপ্টেম্বর, বুধবার। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন। ৭৫ বছর পূর্ণ হলো তাঁর। ১৯৪৭ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় তাঁর জন্ম। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের প্রথম সন্তান তিনি।

রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হিসেবে ছাত্রজীবন থেকে প্রত্যক্ষ রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হন তিনি। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট চক্রান্তমূলক রাজনৈতিক পটপরিবর্তনে পিতা-মাতা, ভাইদেরসহ স্বজন হারানো বেদনা বুকে নিয়ে, শোককে শক্তিতে পরিণত করে ১৯৮১ সালের ১৭ মে দেশে ফিরে আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে দলীয় প্রধানের দায়িত্ব নেন শেখ হাসিনা। তাঁর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এবং অন্য রাজনৈতিক জোট ও দলগুলো ১৯৯০ সালে স্বৈরাচারবিরোধী গণআন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে বিজয়ী হয়। ১৯৯৬ সালে তাঁর নেতৃত্বেই তৎকালীন বিএনপি সরকারের পতন ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে বিজয় অর্জন করে আওয়ামী লীগ।

এক বর্ণাঢ্য সংগ্রামমুখর জীবন শেখ হাসিনার। সাফল্যগাথার এই কর্মময় জীবন কুসুমাস্তীর্ণ ছিল না। মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাস তিনি গৃহবন্দি থেকেছেন। সামরিক স্বৈরশাসনামলে, গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্বদানকালে বেশ কয়েকবার তাঁকে কারা নির্যাতন ভোগ ও গৃহবন্দি থাকতে হয়েছে। ২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি জরুরি অবস্থা জারি করে ড. ফখরুদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতায় এলে ওই বছরের ১৬ জুলাই চাঁদাবাজিসহ দুর্নীতির মামলায় গ্রেপ্তার হন শেখ হাসিনা। ওই সময় সংসদ ভবন চত্বরের বিশেষ কারাগারে প্রায় ১১ মাস বন্দি ছিলেন। বারবার তাঁর জীবনের ওপর ঝুঁকি এসেছে। কমপক্ষে ২০ বার তাঁকে হত্যার অপচেষ্টা করা হয়েছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়েও তিনি অসীম সাহসে তাঁর লক্ষ্য অর্জনে থেকেছেন অবিচল।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এ পর্যন্ত চার মেয়াদে ক্ষমতাসীন হয়েছে। এর মধ্যে চারবার সরকারপ্রধানের দায়িত্বে এলেন তিনি। এ ছাড়া তিন দফা বিরোধী দলের নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

গণতন্ত্র এবং দেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন-সংগ্রামে অসামান্য অবদান রাখার পাশাপাশি রাষ্ট্র পরিচালনায়ও ব্যাপক সাফল্যের পরিচয় দিতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। ১৯৯৬-২০০১ সালে তাঁর প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি ও গঙ্গার পানি বণ্টন চুক্তি তাঁর সরকারের অন্যতম সাফল্য হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। তাঁর নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার টানা ১৩ বছরে দেশের বিশাল অগ্রগতি ও বিস্ময়কর উন্নতি অর্জনে সক্ষম হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছেছে বাংলাদেশ। বৈশ্বিক মহামারি করোনার সময় শেখ হাসিনা গৃহীত পদক্ষেপ জাতিসংঘ, বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম, বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা এবং যুক্তরাষ্ট্র্রভিত্তিক সাময়িকী ফোর্বসসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রশংসিত হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা থেকে শুরু করে চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে তিনি নানামুখী পদক্ষেপ নিয়ে মহামারির বিস্তার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছেন। একই সঙ্গে দরিদ্র মানুষকে ত্রাণ সহযোগিতার পাশাপাশি জীবিকা ও অর্থনীতি বাঁচাতে নিয়েছেন কার্যকর পদক্ষেপ, যা বিশ্ব অর্থনীতিতে একটি রোল মডেল হিসেবে পরিগণিত হয়। সকলের জন্য বিনামূল্যে টিকাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করা হচ্ছে। এরই মধ্যে প্রায় শতভাগ মানুষের ভ্যাকসিন ডোজ সম্পন্ন হয়েছে। চলছে শিশুদের টিকা কার্যক্রমও।

এই অঞ্চলে গণতন্ত্র, শান্তি ও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং নারী শিক্ষার বিস্তার, শিশুমৃত্যুর হার হ্রাস ও দারিদ্র্য বিমোচনের সংগ্রামে অসামান্য ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি হিসেবে দেশি-বিদেশি বেশ কিছু পুরস্কার ও সম্মানে ভূষিত হয়েছেন শেখ হাসিনা।

বিভিন্ন দল ও সংগঠন নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ বুধবার শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালন করবে। আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের পক্ষ থেকে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে অবস্থানরত শেখ হাসিনাকে আজ জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হবে। ঢাকা থেকেও টেলিফোনে তাঁকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

বাংলাদেশ সময়: ১২:০১:৪৬   ১২১ বার পঠিত   #  #  #  #  #




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

জাতীয়’র আরও খবর


ইসলামী ব্যাংকে পর্যবেক্ষক নিয়োগ, সরানো নিয়ে প্রশ্ন
ঋণ গ্রহীতাদের নাম ওয়েবসাইটে প্রকাশের নির্দেশ
চেক ডিজঅনার মামলার রায় দুই মাসের জন্য স্থগিত
অসাধারণ জয় ও দ্বিতীয় রাউন্ডে আর্জেন্টিনা
ষাটোর্ধ্ব মানুষ আগে পাবেন করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
১ মাস সময় বাড়ল আয়কর রিটার্ন দাখিলের
প্রকাশ হলো ৪৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি , পদসংখ্যা ২৩০৯
সোহরাওয়ার্দীতে যে ২৬ শর্তে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি প্রদান
এস এস সি পাশের হার কমছে বেড়েছে জিপিএ-৫
রওশনের সংবাদ সম্মেলন, ‘বিএনপির সঙ্গে জোট নয়’

আর্কাইভ

16. HOMEPAGE - Archive Bottom Advertisement