সীমান্ত ভ্রমণের সাতটি দিন ও প্রাসঙ্গিক কিছু কথা ; পর্ব- ৪১:স্বপন চক্রবর্তী

Home Page » সাহিত্য » সীমান্ত ভ্রমণের সাতটি দিন ও প্রাসঙ্গিক কিছু কথা ; পর্ব- ৪১:স্বপন চক্রবর্তী
শনিবার ● ২৮ জানুয়ারী ২০২৩


ফাইল ছবি-নজরুল-রবীন্দ্রনাথ
রবীন্দ্রনাথ ও কাজী নজরুল ইসলাম-৬

এখানেও কি একটা সংশোধনী দিয়ে মহাশ্মশানের নাম পরিবর্তন করে মহাকবরস্থান করা উচিৎ ? তাতে কি মহাকবি কায়কোবাদ তাঁর ভুলটি বুঝতে পারবেন ? জানিনা।
কাজী নজরুল যে, তাঁর সৃষ্ট সাহিত্য সম্পদের উপর কারো কর্তৃত্ব বা সম্পাদনা একদম সহ্য করতেন না, তার একটা প্রমাণ মিলবে নিচের একটি ঘটনা থেকে-
কাজী নজরুল ১৯২২ খ্রীস্টাব্দের মে মাসে শেষের দিকে কুমিল্লা থেকে কোলকাতায় প্রত্যাবর্তন করে মওলানা আকরম খানের “ দৈনিক সেবক” পত্রিকায় যোগদান করেন। নজরুল যখন “সেবক” পত্রিকায় কাজ করছিলেন তখন ১৯২২ খ্রিস্টাব্দের ২৫ জুন ( ১০ আষাঢ়,১৩২৯ সাল ) কবি সত্যেন্দ্র নাথ দত্ত একচল্লিশ বছর বয়সে পরলোক গমন করেন। তাঁর প্রিয় কবির মৃত্যুতে নজরুল “ সেবক” পত্রিকার জন্যে একটি দীর্ঘ আবেগপূর্ণ সম্পাদকীয় লিখেন। প্রকাশ যে পরের দিন পরিবর্তিত আকারে সম্পাদকীয়টি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ক্ষুব্ধ হয়ে নজরুল “সেবক” পত্রিকার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। সম্পাদকীয়টির পরিবর্তন সাধন করেছিলেন” “সেবকের” মোহাম্ম ওয়াজেদ আলী এবং আবুল কালাম শামসুদ্দীন। ঘটনাটি আবুল কালাম শামসুদ্দীন বর্ণনা করেছেন “ অতীত দিনের স্মৃতি “ ( নওরোজ কিতাবিস্তান ) গ্রন্থে।
ওয়াজেদ মিয়া বলেন, …. কিন্তু এমন হিন্দুয়ানী ভাব ভাষায় লেখা দেখলে মওলানা চটে আগুন হয়ে যাবেন। ….তবে এক কাজ করুন, ভাষা কিছু কিছু বদলে দিন। আর যেখানে ভাবের দিক দিয়ে গোলমাল , সেখানে কাঁচি কাটা করুন। … এর ভাষা ও ভাবের হিন্দুয়ানী চেহারাটা বদলে দিন। তাতে যা হবার হোক। অগত্যা তাই করা হলো। কিন্তু পরদিন কাগজে তার প্রবন্ধের দুর্গতি দেখে নজরুল যে খুশি হতে পারেন নাই , তার প্রত্যক্ষ প্রমাণ পাওয়া গেল। নজরুল সেদিন অফিসে এলেন না, তার পরদিনও নয়। শুধু তাই নয়, এরপর তাকে আর “সেবক” অফিসে কোনদিনই দেখা গেল না।
কবি সত্যেন্দ্র নাথ দত্ত যেদিন মারা যান ( ২৫ জুন ১৯২২ খ্রীঃ) সেদিন সন্ধায় কলেজ স্কোয়ারের স্টুডেন্টস হলে শরৎচন্দ্র চট্টোপধ্যায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোক সভার জন্য নজরুল “ চল চঞ্চল বাণীর দুলাল এসেছিলে পথ ভুলে” গানটি রচনা করে তা সভায় গেয়ে ছিলেন। (বসুমতি ,শ্রাবণ ১৩২৯ ) “ ভারতী” পত্রিকার “ সত্যেন্দ্র নাথ স্মৃতি সংখ্যা “ নজরুল সত্যেন্দ্র এর জন্য তিনি রচনা করেন “ কবি সত্যেন্দ্র “ নামে কবিতাটি , যার প্রথম চরণ , “অসত্য যত রহিল পড়িয়া সত্য সে গেল চ’লে” । তিনি ”সত্যেন্দ্র প্রয়াণ” নামে আরো একটি দীর্ঘ কবিতা রচনা করেছিলেন, যার শুরু “ আজ আষাঢ় মেঘের কালো কাফনের আড়ালে মু’খানি ঢাকি” কবিতাটি “ বিজলী পত্রিকায় প্রকাশিত হয় ১৬ই আষাঢ় ১৩২৯ সাল ( ৩০শে জুন ১৯২২ খ্রীঃ) । সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত মারা যান ১০ই আষাঢ় ,অথচ “ ফণিমনসা” গ্রন্থে সংকলিত কবিতাটির রচনাকাল দেওয়া আছে শ্রাবণ ১৩২৯ “; এ তারিখ সঠিক নয়। “ ফণিমনসা “ গ্রন্থে সংকলিত “ সত্যেন্দ্র প্রয়ান গীতির “ রচনাকাল উল্লিখিত শ্রাবণ ১৩২৯, অথচ গানটি নজরুল ১০ ই আষাঢ় শোক সভায় গেয়ে ছিলেন। সত্যেন্দ্র নাথ সম্পর্কে এই তিনটে রচনা এবং পূর্বাহ্নে রচিত ‘ দিল-দরদী” কবিতা “ ফণিমনসা” গ্রন্থে সংকলিত। (চলবে )

বাংলাদেশ সময়: ১৯:৩৩:৪৫ ● ২৭৪ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ