বাহরাইনের একটি দ্বীপ কিনেছে ইসরায়েল

Home Page » জাতীয় » বাহরাইনের একটি দ্বীপ কিনেছে ইসরায়েল
মঙ্গলবার ● ৭ মার্চ ২০২৩


বাহরাইনের আব্দুল রতিফ-বিন- আল রশিদ ও ইসরাইলের মীরবেন শাব্বাতের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

বঙ্গ-নিউজ: ২০২০ সালে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জেরে ব্যাপক প্রতিবাদ-বিক্ষোভ হয়েছে বাহরাইনে। এর মধ্যে এলো নতুন খবর, বাহরাইনের একটি দ্বীপ কিনেছে ইসরায়েল। খবর মিডেল ইস্ট মনিটর।

খবরে বলা হয়, বাহরাইনের দ্বীপ কেনার খবরটি প্রথমে প্রকাশ করে ইসরায়েলের গণমাধ্যম টিভি৭। তবে পরে সেটি সরিয়ে ফেলা হয়। কিন্তু সরানোর আগে খবরের কপি ও স্ক্রিনশট নিয়ে নেয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা। সেসব স্ক্রিনশট এখন ছড়িয়ে পড়েছে।

খবরে আরও বলা হয়, বাহরাইন থেকে ২১ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে দ্বীপটি কিনেছে ইসরায়েলি ফার্ম হিমনোটা। ফার্মটি চালায় ইহুদি জাতীয় তহবিল বা জেএনএফ। কথিত দাতব্য সংস্থাটির কাজ হলো ফিলিস্তিনি ভূমি দখল এবং ইসরায়েলের যুদ্ধাপরাধের পক্ষে কার্যক্রম চালানো।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দ্বীপটির আয়তন ৯ হাজার ৫৫৪ বর্গ মিটার। এটি বিনিয়োগ প্রকল্পের জন্য ব্যবহার করা হবে। পাশাপাশি ইসরায়েলে যদি কোনো কারণে যুদ্ধ শুরু হয়, তাহলে বাসিন্দাদের ওই দ্বীপে সরিয়ে নেওয়া হবে।

হিমনোটা কোম্পানির পরিচালনা পরিষদের একজন অ্যাভেরি শ্নেয়ার বলেছেন, বাহরাইন হচ্ছে ইসরায়েলের বন্ধুপ্রতিম দেশ। দ্বীপটির সার্বভৌমত্ব ইসরায়েলের কাছে হস্তান্তরের জন্য তাদের সাথে আমরা আলোচনা করব।

এ খবর প্রকাশ হওয়ার পর বাহরাইনে আবার সরকার বিরোধী সমালোচনা শুরু হয়েছে। দ্বীপ কেনার ঘটনাকে ঔপনিবেশিক শাসনের সম্প্রসারণ হিসেবে বর্ণনা করেছেন মানবাধিকারকর্মী মরিয়ম আল খাজা। এ বিষয়ে টুইটারে দেওয়া পোস্টে বাহরাইন সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন তিনি।

বাহরাইনের সাবেক আইনপ্রণেতা এবং সালম ফর ডেমোক্রেসি অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের প্রধান জাওয়াদ ফাইরুজ দ্বীপ বিক্রির ঘটনাকে খুবই বিপজ্জনক এবং উদ্বেগজনক হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০:২৫:১৪ ● ২৯৫ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ