প্রতিবারই নির্বাচনের সময় দেশি-বিদেশি চক্রান্ত শুরু হয়:প্রধানমন্ত্রী

Home Page » জাতীয় » প্রতিবারই নির্বাচনের সময় দেশি-বিদেশি চক্রান্ত শুরু হয়:প্রধানমন্ত্রী
শুক্রবার ● ১৭ মে ২০২৪


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বঙ্গ-নিউজ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জনগণকে সুন্দর ও উন্নত জীবন দিতে সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই আওয়ামী লীগ দেশকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যাবে। আজ শুক্রবার নিজের ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে গণভবনে তাকে শুভেচ্ছা জানাতে আসা নেতাকর্মীদের এ কথা বলেন শেখ হাসিনা। খবর বাসসের।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশে প্রতিবারই নির্বাচনের সময় চক্রান্ত হয়, দেশি-বিদেশি সেই চক্রান্ত মোকাবেলা করেই আমরা বেরিয়ে আসি। আমাদের আরও সামনে এগিয়ে যেতে হবে।’

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের বেশির ভাগ সদস্য ঘাতকদের হাতে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। তখন বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা দেশের বাইরে অবস্থান করায় প্রাণে বেঁচে যান। পরে দীর্ঘ ছয় বছরের প্রবাসজীবন শেষে ১৯৮১ সালের ১৭ মে স্বদেশে প্রত্যাবর্তন করেন শেখ হাসিনা। সেদিন বিমানবন্দরে লাখ লাখ জনতা স্বাগত জানায় তাকে।

বিদেশে থাকাকালেই ১৯৮১ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনে দলের সভাপতি নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা। দেশে ফিরে তিনি আওয়ামী লীগ পুনর্গঠনের পাশাপাশি জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে লিপ্ত হন। এরই পথ ধরে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৯৯৬ সালে প্রথম রাষ্ট্রক্ষমতায় আসে আওয়ামী লীগ। ২০০৯ সালে দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসেন শেখ হাসিনা। তারপর থেকে এবার টানা চতুর্থ মেয়াদে ক্ষমতাসীন শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ এখন দেশের সবচেয়ে বৃহত্তম, শক্তিশালী ও জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য সংগঠন। সেজন্যই পঞ্চম মেয়াদে ক্ষমতায় এসেছে আওয়ামী লীগ।

আজকের বাংলাদেশ বদলে যাওয়া বাংলাদেশ উল্লেখ করে পঞ্চমবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের যদি রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনা না থাকে, ভেতরে দেশপ্রেম না থাকে, সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার কোনো প্রত্যয় না থাকে, তাহলে তারা এগিয়ে যেতে পারে না।

বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, আমার বাবার একটাই স্বপ্ন ছিল, এই দেশটাকে সোনার বাংলা গড়ার। আমাদের লক্ষ্যও সেটিই রয়েছে। কী পেলাম, আর কী পেলাম না, সেই চিন্তা করিনি কখনোও। কেবল চিন্তা করি দেশের মানুষের ভবিষ্যত যেন আরও সুন্দরভাবে গড়ে দিয়ে যেতে পারি।

দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্য আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, মনে রাখবেন, দল করি শুধু নেতা হওয়ার জন্য নয়। দেশের মানুষের জন্য কতটা করতে পারলাম, তাদের কী দিতে পারলাম, কী দিয়ে গেলাম- এটাই একজন রাজনীতিবিদের জীবনের বড় কথা। এই মূলমন্ত্র মাথায় রাখলে দেশের মানুষের জন্য অনেক কিছুই করা যায়।

দলকে আরও শক্তিশালী করার তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে আর যেন যুদ্ধাপরাধী-খুনিরা ছিনিমিনি খেলতে না পারে, সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

এর আগে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলীয় নেতাকর্মীরা গণভবনে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনাকে তার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

বাংলাদেশ সময়: ২০:২৯:৪১ ● ৩৬ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ