বৃষ্টিতে বিশেষ সুবিধা পাবেন এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা

Home Page » পড়ালেখা ও সাজেশন্স।। » বৃষ্টিতে বিশেষ সুবিধা পাবেন এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা
বৃহস্পতিবার ● ৪ জুলাই ২০২৪


 ছবি : সংগৃহীত

বঙ্গনিউজঃ ২০২৪ সালের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রথম দিনে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সকাল থেকে কয়েক দফা বৃষ্টি হয়েছে। এতে কেন্দ্রে পৌঁছাতে চরম দুর্ভোগে পড়েন পরীক্ষার্থীরা। এমনকি অনেকে পরীক্ষায় অংশ নিতেও পারেননি। আজ মঙ্গলবার (২ জুলাই) দ্বিতীয় দিনের মতো এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিন ৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বাংলা দ্বিতীয়পত্র, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে হবে আলিম আরবি প্রথমপত্রের পরীক্ষা। এ ছাড়া কারিগরি বোর্ডের অধীনে ইংরেজি-২ পরীক্ষা নেয়া হবে। সব পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত। শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে। ঠিক এ সময়ে বৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। তাই ভোগান্তি এড়াতে পরীক্ষার্থীদের সময় হাতে নিয়ে বাসা থেকে বের হতে বলেছেন পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড কর্মকর্তারা। এরপরও দেরি হলে পরীক্ষা শুরু করে সময় আধাঘণ্টা বা এক ঘণ্টা সমন্বয় করতে বলা হয়েছে।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার সরকার সোমবার রাতে সংবাদমাধ্যমকে বলেন, যেহেতু বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে, তাই পরীক্ষার্থীদের সময় হাতে নিয়ে বের হওয়া উচিত হবে। তারপরও কেউ যদি দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে কেন্দ্রে দেরিতে পৌঁছে, তাকে সময় সমন্বয় করে পুরো সময়ে পরীক্ষা দিতে সুযোগ দেওয়া হবে। সেই নির্দেশনা আমরা দিয়েছি।আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মো. আবুল বাশারের সই করা জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী কয়েকদিন প্রচুর বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। পরীক্ষার দিনগুলোতে বৃষ্টি থাকলে প্রয়োজনে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই কেন্দ্রের মূল ফটক খুলে দিয়ে পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশের ব্যবস্থা করতে হবে।এতে আরও বলা হয়, অনিবার্য কারণে কোনো কেন্দ্রের পরীক্ষা শুরু করতে আধাঘণ্টা কিংবা এক ঘণ্টা দেরি হলে জরুরি পরিস্থিতি বিবেচনায় সেই আধাঘণ্টা বা এক ঘণ্টা সময় সমন্বয় করে পরীক্ষা শেষ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হলো।এদিকে আবহাওয়াবিদ মনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, আগামী তিন দিন ঢাকাসহ সারাদেশে বৃষ্টির আভাস রয়েছে। সেক্ষেত্রে আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে ১০টার মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে।

গত ৩০ জুন সারা দেশে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়েছে। তবে বন্যার কারণে সিলেট শিক্ষা বোর্ড এবং সিলেট বিভাগের চার জেলায় মাদ্রসা বোর্ডের অধীনে আলিম এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষা ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত রয়েছে। ফলে ৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে প্রথমদিনে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১১ লাখ ২২ হাজার ৫৫২ জন। প্রথম দিনের পরীক্ষায় ১৫ হাজার ২০৩ জন অনুপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এবার ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি/আলিম/এইচএসসি (বিএম/বিএমটি), এইচএসসি(ভোকেশনাল)/ডিপ্লোমা ইন কমার্স পরীক্ষায় মোট ১৪ লাখ ৫০ হাজার ৭৯০ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছেন। এর মধ্যে ছাত্র ৭ লাখ ৫০ হাজার ২৮১ জন এবং ছাত্রী ৭ লাখ ৫০৯ জন।

পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১ হাজার ৫৬৬ কেন্দ্র এবং ৪ হাজার ৮৭০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। আলিম পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৮৮ হাজার ৭৬ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৫৯২ জন এবং ছাত্রী ৪০ হাজার ৪৮৪ জন। মোট কেন্দ্র ৪৫২টি এবং মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২ হাজার ৬৮৫টি।

এ ছাড়া এইচএসসি (বিএম/বিএমটি) এইচএসসি (ভোকেশনাল)/ডিপ্লোমা ইন কমার্স পরীক্ষা (কারিগরি) বোর্ডে এবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২ লাখ ৩৪ হাজার ৪৩৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৬৯ হাজার ৯ জন এবং ছাত্রী ৬৫ হাজার ৪২৪ জন। মোট কেন্দ্র ৭০৭টি এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১ হাজার ৯০৮টি।

বাংলাদেশ সময়: ১১:৫৮:০৭ ● ৪৫ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ