ব্যাটে-বলে অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স বাংলাদেশের, ধরাশায়ী ইংল্যান্ড

Home Page » ক্রিকেট » ব্যাটে-বলে অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স বাংলাদেশের, ধরাশায়ী ইংল্যান্ড
বৃহস্পতিবার ● ৯ মার্চ ২০২৩


টাইগারদের দাপটে ধরাশায়ী ইংল্যান্ড

বঙ্গ-নিউজ: আলো ছড়িয়েছেন বোলাররা। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ইংল্যান্ডকে নাগালেই বেঁধে ফেলেন সাকিব-হাসানরা৷ পরে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারলেন ব্যাটাররা। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে বাংলাদেশ তুলে নিলো দুর্দান্ত এক জয়। সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ইংল্যান্ডকে আজ ছয় উইকেটে হারিয়েছে টাইগাররা। এই সংস্করণে দ্বিতীয় দেখায় বাংলাদেশ পেল প্রথম জয়।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ওভারে ছয় উইকেটে ১৫৬ রান করে ইংল্যান্ড। জবাবে চার উইকেট হারিয়ে ১২ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিযে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল টাইগাররা। আগামী রোববার একই ভেন্যুতে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

রান তাড়ায় বাংলাদেশের জয়ের পথ সুগম করে নেন নাজমুল হোসেন শান্ত। বাঁহাতি এই ব্যাটার উপহার দেন ঝোড়ো ফিফটি। ৩০ বলে ৫১ রানের কার্যকর ইনিংস খেলেন শান্ত। পরে তার দেখানো পথেই হেঁটেছে মিডল অর্ডার। ১৭ বলে ২৪ রান করেন তৌহিদ হৃদয়। পরে সাকিব আল হাসান ও আফিফ হোসেন ধ্রুব জয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন।

সাকিব ২৪ বলে ৩৪ এবং আফিফ ১৩ বলে ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন। এ ছাড়া ওপেনার লিটন দাস ১০ বলে ১২ এবং রনি তালুকদার ১৪ বলে ২১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে বিদায় নেন। প্রথম তিন ওভারে ৩২ রান তুলে দলকে দারুণ শুরু এনে দেন দুই ওপেনার। বাংলাদেশের পতন হওয়া উইকেটের একটি করে নেন জফরা আর্চার, আদিল রশিদ, মার্ক উড ও মইন আলি।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নামা ইংলিশদের শুরুটা হয় দারুণ। উদ্বোধনী জুটিতে ৮০ রান করেন দুই ওপেনার ফিলিপ সল্ট ও বাটলার। দশম ওভারের শেষ বলে ব্রেক থ্রু এনে দেন নাসুম আহমেদ। সল্টকে কিপার লিটনের ক্যাচ বানান এ স্পিনার। ৩৫ বলে ৩৮ রানে বিদায় নেন ইংলিশ ওপেনার।

তবে টিকে থাকলেন বাটলার। ছাড়িয়েছেন ব্যক্তিগত ফিফটি। ৪২ বলে চারটি করে চার-ছক্কায় ৬৭ রানে আউট হন ইংলিশ দলপতি। পরে বেন ডাকেট ১৩ বলে ২০ রানে আউট হন। ইংল্যান্ডের বাকি পাঁচ ব্যাটার যেতে পারেননি দুই অংকে। মূলত বাটলারের আউটের পর কমে আসে সফরকারীদের রানের গতি। ইংল্যান্ডকে চেপে ধরেন বাংলাদেশের বোলাররা।

ইংল্যান্ডকে নাগালে বেঁধে ফেলতে সাকিব ও হাসান মাহমুদ রেখেছেন কার্যকর ভূমিকা। দুজনই চার ওভারে সমান ২৬ রান দিয়েছেন। হাসানের শিকার অবশ্য দুটি। সাকিবের একটি। এ ছাড়া মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ ও নাসুম। বোলাররা লক্ষ্যমাত্রা সীমার মধ্যে রেখেছেন। নিজেদের কাজটা করেছেন ঠিকঠাক। পরে জয়ের বাকি কাজ সারেন ব্যাটাররা। ঝলমলে ফিফটির সুবাদে ম্যাচ সেরা হয়েছেন শান্ত।

বাংলাদেশ সময়: ২০:০৮:৫৭ ● ৪৫৮ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ