মধ্যনগরে আবারো অগ্নিকাণ্ড,তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে মানবিক ইউএনও নাহিদ হাসান খান

Home Page » সারাদেশ » মধ্যনগরে আবারো অগ্নিকাণ্ড,তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে মানবিক ইউএনও নাহিদ হাসান খান
শনিবার ● ১৩ মে ২০২৩


।।

হাওরাঞ্চল ব্যুরো অফিস, বঙ্গনিউজ:
সুনামগঞ্জের মধ্যনগর উপজেলার সদর ইউনিয়নে মাত্র ১৫ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক দুইটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তাৎক্ষণিকভাবে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দুইটি পরিবারের পাশে ছুটে গেলেন মধ্যনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদ হাসান খান।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে করুয়াজান গ্রামের কৃষক মনতাজ মিয়ার গোয়াল ঘরে আকষ্মিক অগ্নিকাণ্ডে গবাদিপশু সহ পাশের কাচারী ঘরটি পুড়ে মারাত্মকভাবে ক্ষতি হয়। সেই সাথে কাচারী ঘরে রাখা গোখাদ্য, বিছানাপত্র সহ যাবতীয় আসবাবপত্র পুড়ে যায়। অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি নজরে এলে প্রতিবেশী ও গ্রামবাসী প্রায় তিনঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।
ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মনতাজ মিয়া ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান অগ্নিকাণ্ডে প্রায় তিন লক্ষাধিক টাকার সমপরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে খবর পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মনতাজ মিয়ার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে শুক্রবার দুপুরেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান মধ্যনগর উপজেলার মানবিক নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদ হাসান খান। তিনি সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসকের পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহায়তা নগদ ২০হাজার টাকা ও তিন বান ঢেউটিন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছে প্রদান করেন। এ সময়ে সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য সহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে করুয়াজান গ্রামের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রায় ১৫ ঘন্টা পূর্বে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে জমশেরপুর গ্রামের মৃত রঘুনাথ সরকারের ছেলে নিবারন সরকার(৪৪) এর বসত ঘরেও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে নিবারন সরকারের বসতঘর,আসবাবপত্র, মজুতকৃত ধান ও নগদ অর্থ সহ প্রায় ৫লক্ষাধিক টাকা সমমূল্যের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানাযায়। স্থানীয়দের ধারনা বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হতে পারে।
ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত নিবারন সরকারের
পরিবারে পাশে স্বান্তনা ও সহযোগিতার বার্তা নিয়ে উপস্থিত হন মানবিক ইউএনও নাহিদ হাসান খান।
জেলা প্রশাসকের পক্ষে মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহায়তা নগদ ২৫ হাজার টাকা ও তিন বান ঢেউ টিন তুলে দেন অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত নিবারন সরকারের হাতে।
এদিকে সাধারন নাগরিকদের বিপদে-আপদে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ছুটে যাওয়া ও বিপদগ্রস্তদের পাশে স্ব-শরীরে উপস্থিতিকে মানবতাবাদী কাজ হিসেবে মূল্যায়ন করছেন স্থানীয় সচেতন মহল। প্রশংসিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষের মাঝে।
জানাযায়, নবগঠিত মধ্যনগর উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে জনসাধারণের যে কোনো সংকটে-বিপদের কথা জানা মাত্রই ইউএনও নাহিদ হাসান খান ছুটে যান বিপদগ্রস্ত পরিবারের পাশে।শান্তনা প্রদান ও সহমর্মিতা প্রকাশের পাশাপাশি সাধ্যমতো সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। ইউএনও হিসেবে যোগদানের পর থেকেই তার এই মানবিক কর্মপদ্ধতির ফলে সকলের কাছে তিনি একজন মানবিক ইউএনও হিসেবে গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছেন।
উল্লেখ্য যে, ইউএনও নাহিদ হাসান খান তার পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনে সৃজনশীল কর্মদক্ষতা ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন শ্রেণিতে ২০২২ সালে সরকারী কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ সম্মাননা জনপ্রশাসন পদক লাভ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১০:১২:২৯ ● ৩৭২ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ