ময়মনসিংহে ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি,রাস্তা যেন মরণফাঁদ

Home Page » জাতীয় » ময়মনসিংহে ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি,রাস্তা যেন মরণফাঁদ
রবিবার ● ৯ জুলাই ২০২৩


ময়মনসিংহে ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি,প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা

বঙ্গ-নিউজঃ   ময়মনসিংহ নগরীর বিভিন্ন সড়কে ম্যানহোলের ঢাকনা না থাকায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা, চলাচল করতে হচ্ছে ঝুঁকি নিয়ে। রাতের বেলায় কিংবা বৃষ্টির পানিতে রাস্তা তলিয়ে গেলে এই ঝুঁকির মাত্রা কয়েক গুণ বেড়ে যায়। মাদকাসক্ত এবং পেশাদার চোরেরা রাতের আঁধারে ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি করে নিয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন মহানগরের বেশ কয়েকটি এলাকার বাসিন্দারা। ময়মনসিংহ নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে রাস্তা এবং ফুটপাতের নিচে ম্যানহোলের ঢাকনাসহ আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু ড্রেনগুলো নির্মাণের কয়েক মাস যেতে না যেতেই বলাশপুর, আলিয়া মাদ্রাসা, ভাটিকাশরসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় একের পর এক ঢাকনা চুরি হতে থাকে। কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি।

প্রায় ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে মহানগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে ৩৪৫ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণকাজ চলমান রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই ম্যানহোলের ঢাকনাসহ বক্স সিস্টেমের ড্রেন। এসব ড্রেনের ম্যানহোলের ঢাকনা খোয়া যাওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পথচারীদের। ঢাকনা না থাকায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

এ ধরনের অপকর্ম রোধে পুলিশ টহল বাড়ানোর কথা জানালেও সিটি করপোরেশন বলছে ভবিষ্যতে বিকল্প পদক্ষেপ গ্রহণের কথা। সব মিলিয়ে বিভিন্ন এলাকায় শতাধিক ঢাকনা চুরি হয়ে গেছে।

রাস্তার মাঝে ও ফুটপাতে ঢাকনা না থাকায় মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে ঢাকনাবিহীন এই ম্যানহোলগুলো। ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে গিয়ে আহত হয়েছেন অনেকেই।

স্থানীয়রা বাঁশের খুঁটি, কাপড় টানিয়ে সতর্কতসংকেত দিলেও মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলতে হচ্ছে নগরবাসীকে।

ঢাকনা না থাকায় বৃষ্টির সঙ্গে মাটি ও ময়লা জমে ভরাট হয়ে তৈরি হচ্ছে জলাবদ্ধতার। ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ, বাড়ছে মশার উপদ্রব। ঘনঘন ম্যানহোলের ঢাকনা চুরি হলেও কর্তৃপক্ষের নীরব ভূমিকা নিয়ে ক্ষুব্ধ সাধারণ এলাকাবাসী। এ থেকে পরিত্রাণে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবী ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর। ঢাকনা চুরির সঙ্গে জড়িতরা মাদকাসক্ত দাবি করে টহল তৎপরতা বাড়ানোর কথা বলেছে পুলিশ।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ জানান, সম্প্রতি চুরি হওয়া বেশ কয়েকটি ঢাকনাসহ দুই চোরকে আটক করা হয়েছে। ঢাকনা কেনাবেচা বন্ধের লক্ষ্যে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি।

আর চুরি ঠেকাতে বিকল্প পদ্ধতি গ্রহণের কথা বলছে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইউসুফ আলী।

তিনি জানান, লোহার ঢাকনার বদলে সিমেন্ট ও কংক্রিট নির্মিত ঢাকনা ব্যবহারের চিন্তাভাবনা চলছে এবং চুরি হওয়া স্থানে দ্রুত ঢাকনা প্রতিস্থাপন করা হবে

বাংলাদেশ সময়: ১৩:১০:৫৩ ● ২১২ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ