কুলিং ব্রেক সুপার লিগে

Home Page » ক্রিকেট » কুলিং ব্রেক সুপার লিগে
সোমবার ● ২২ এপ্রিল ২০২৪


 ফাইল ছবি

 

 বঙ্গনিউজঃ  মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের সবুজ ঘাসগুলো গত কয়েক দিনের রোদে মলিন হয়ে গেছে। রোদের তীব্রতায় জলশূন্য হয়ে মাটির কোলে ঢলে পড়ার মতো অবস্থা। মাঠের ঘাস যেখানে কাহিল, সেখানে ৩৯ ডিগ্রি তাপমাত্রায় ৫০ ওভারের ক্রিকেট ম্যাচ খেলা যে খুব কঠিন হবে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তাপদাহের এই কঠিন পরিস্থিতিতেও আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে সুপার লিগের খেলা।

ক্রিকেটারদের সুস্থতার বিষয়টি মাথায় রেখে প্রতি রাউন্ডের বিরতি রাখা হয়েছে দু’দিন। ম্যাচের ভেতরেও আনা হয়েছে কিছু পরিবর্তন। সিসিডিএম থেকে জানা গেছে, ম্যাচে অতিরিক্ত দুটি ‘কুলিং ব্রেক’ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ফলে সুপার লিগের ম্যাচে ইনিংসে চারটি করে বিরতি থাকছে। কতক্ষণ পর কত সময়ের বিরতি দেওয়া হবে, তা ঠিক করবেন আম্পায়াররা।

বিকেএসপি, ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ও মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে হবে সুপার লিগের খেলা। প্রতিটি ভেন্যুতে বাড়তি সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে লিগের খেলা ভালোভাবে শেষ করতে। সিসিডিএম সমন্বয়ক মহিউদ্দিন বিল্লাহ রাসেল জানান, ম্যাচে চারটি বিরতি দেওয়ার পাশাপাশি ছাতা ও পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা থাকবে। এই সুযোগ-সুবিধাগুলো খেলোয়াড়, ম্যাচ অফিসিয়াল, মাঠকর্মী সবার জন্য। ক্রিকেট দলগুলোও নিজস্ব ব্যবস্থায় কিছু সুযোগ-সুবিধা রেখেছে।

আবাহনীর ম্যানেজার শেখ মামুন জানান, বরফশীতল জলে ভেজা তোয়ালে প্রস্তুত রাখা হবে ক্রিকেটারদের শরীর মোছার জন্য। বৈশাখের গরমের তীব্রতায় হিট স্ট্রোক থেকে শিক্ষার্থীদের বাঁচাতে স্কুলের ছুটি বাড়িয়েছে সরকার। বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হচ্ছে অনলাইন ক্লাস। সুস্থ থাকতে লোকজনের বাইরে বের হওয়ার পরিমাণও কমে গেছে। সাধারণ মানুষ রোদ এড়াতে পারলেও ক্রিকেটারদের পক্ষে তা কিছুতেই সম্ভব না। ঢাকা লিগে সেটা আরও কঠিন। কারণ লিগের সব ভেন্যুতে ফ্লাইডলাইট না থাকায় ম্যাচগুলো দিবারাত্রি করতে পারছে না সিসিডিএম। এই বাস্তবতা মেনে বিকল্প সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে সুপার লিগের খেলা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছে বিসিবি।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ ছয় দল নিয়ে হয় সুপার লিগ। রাউন্ড রবিন লিগের ১১ ম্যাচের অপরাজিত আবাহনীর পয়েন্ট ২২। টেবিলের শীর্ষ দলের সঙ্গে দ্বিতীয় স্থানে থাকা শাইনপুকুর, মোহামেডান স্পোর্টিং ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের পয়েন্টের ব্যবধান ছয়। আবাহনী সুপার লিগে তিন ম্যাচ জিতে নিলেই চ্যাম্পিয়ন। সেদিক থেকে দেখলে আবাহনীর চ্যাম্পিয়ন হওয়া অনেকটাই নিশ্চিত। সুপার লিগে লড়াই হবে মূলত দ্বিতীয় স্থানের জন্য। দ্বিতীয় হওয়ার সুযোগ সবার জন্য উন্মুক্ত। এই রাউন্ডে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই খেলছেন।

লিটন কুমার দাস লিগে ফিরছেন আজ। উইকেটরক্ষক এ ব্যাটারের ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা আছে বলে জানান আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন। লিটন ফিরলেও সৌম্য সরকারের খেলার অনুমতি মেলেনি। বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামেরও খেলা হবে না। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলার সময় হাঁটুতে আঘাত পান তিনি। ব্যথা নিয়েই খেলে গেছেন দ্বিতীয় টেস্ট। সিরিজ শেষে লম্বা বিরতি পেলেও সুস্থ হননি টাইগার এ স্পিনার। ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামও তাই ঢাকা লিগে খেলার অনুমতি দেননি তাইজুলকে।

বাংলাদেশ সময়: ১১:৫২:১১ ● ৬০ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ