কোরবানির জন্য প্রস্তুত ৮৭ হাজার পশু

Home Page » সারাদেশ » কোরবানির জন্য প্রস্তুত ৮৭ হাজার পশু
মঙ্গলবার ● ২১ মে ২০২৪


ফাইল ছবি

বঙ্গনিউজ ডেস্ক : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে কোরবানির ঈদ সামনে রেখে পালন করা ষাঁড় গরুসহ বিপুলসংখ্যক পশু হৃষ্টপুষ্ট করা হচ্ছে। প্রাণিসম্পদ বিভাগের তথ্যে প্রকাশ, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে খামার ও গৃহস্থ পরিবারগুলোতে ৮৬ হাজার ৬৬১টি পশু প্রস্তুত করা হয়েছে। গত বছরের চেয়ে এবার পশুর সংখ্যা প্রায় ৭ শতাংশ বেড়েছে।

জানা গেছে, উপজেলায় ছোট-বড় খামার ও পারিবারিকভাবে প্রায় সাত হাজার ২৫০ জন খামারি ষাঁড়, বলদ ও বকনা গরু ছাড়াও মহিষ, ছাগল, ভেড়া লালন-পালন করছেন।

জানা গেছে, যমুনা নদীর চরাঞ্চল কৈজুরী, সোনাতনী ও জালালপুর ইউনিয়নে গৃহস্থ পরিবারগুলো প্রধানত দেশি জাতের ষাঁড় ও বকনা গরু লালন-পালন করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে গরুগুলোকে খাদ্যের জোগান তত বাড়ানো হচ্ছে। যমুনা চরের গৃহস্থ পরিবারের অনেকেই অন্য পেশার পাশাপাশি গরু লালন-পালন করছেন।

কোরবানির পশুগুলোকে হৃষ্টপুষ্ট করতে গমের ভুসি, ছোলা, খেসারি ও মসুরের ভুসি খাওয়ানো হচ্ছে।

শাহজাদপুর উপজেলার জামিরতা গ্রামের জহুরুল ইসলাম, একই গ্রামের ছাইদুর রহমান ও পোরজনা ইউনিয়নের নন্দলালপুর গ্রামের জহুরুল ইসলাম জানান, তাঁরা বিভিন্ন এলাকা থেকে গরু কিনে খামারে এনে লালন-পালন করেন। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে বিক্রির উদ্দেশ্যে খামারি ও গৃহস্থরা পশু লালন-পালন করছেন। খামারিরা জানান, বেশির ভাগ গরুই স্থানীয়। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বেপারীরা এসে বাড়ি থেকে গরু কিনে নিয়ে যান।

খামারিরা জানান, গোখাদ্য ও ওষুধপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত বছরের তুলনায় তুলনামূলকভাবে পশু লালন-পালনে খরচ বেড়ে গেছে।

চোরাই পথে দেশের বাইরে থেকে গরু না এলে ভালো দাম পাওয়া যাবে বলে খামারিরা আশা করছেন।

জামিরতা গ্রামের খামারি জহুরুল ইসলাম জানান, তাঁর খামারে এবার ১৭টি গরু প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে উপজেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগের পরামর্শে লালন-পালন করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, তাঁর খামারে এক হাজার কেজি (এক টন) ওজনের রাজা নামের গরুটির দাম উঠেছে ৯ লাখ টাকা। তবে তিনি আরো ভালো দাম পাওয়ার আশা করছেন।

এদিকে শাহজাদপুর উপজেলার প্রাণিসম্পদ কর্মকতা ডা. বিল্লাল হোসেন জানান, শাহজাদপুর উপজেলায় কোরবানির ঈদে স্থানীয়ভাবে গরুর চাহিদা রয়েছে প্রায় ২৫ হাজার। খামারি ও গৃহস্থরা পশু লালন-পালনের জন্য হৃষ্টপুষ্ট করতে পশুখাদ্যের পাশাপাশি স্টেরয়েড ওষুধ ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক উপায়ে গরুগুলো লালন-পালন করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১:০৮:৫২ ● ৪২ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ